অনলাইনে ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ডে কেনাকাটার সময় ব্যাংকের তরফ থেকে সরাসরি 10% ছাড়ের উপরে আরও 10% পর্যন্ত এক্সট্রা ছাড় পেতে…

5/5 - (2 জন রেটিং করেছেন)

অনলাইনে কেনাকাটার সময় বিভিন্ন ওয়েবসাইটে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ডে বিভিন্ন হারে ছাড় পাওয়া যায়। সাধারণত কার্ড ইস্যুয়ার ব্যাংকের তরফ থেকে এই ছাড় দেওয়া হয়। এমনিতে সাধারণভাবে 10% পর্যন্ত এই ছাড় থাকে। আপনার কাছে ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ড থাকলেই আপনি কারও সাহায্য ছাড়াই এবং আলাদা কোনও ট্রিক ব্যবহার না করেই যে ব্যাংকের কার্ডে ছাড় উপলব্ধ সেই ব্যাংকের কার্ড ব্যবহার করে পেমেন্ট করলেই সেই বেসিক ছাড়ের সুবিধা পেতে পারেন।

কিন্তু ওই বেসিক ছাড়, মানে যেটার কথা বলা থাকে বা যেটা দেখা যায় তার উপরে, 10% পর্যন্ত এক্সট্রা ছাড় পাওয়া যায়। মানে কার্ডের মাধ্যমে মোট 10% (বেসিক) +10% (এক্সট্রা) = 20% পর্যন্ত ছাড় পাওয়া যেতে পারে। এবং সেই এক্সট্রা ছাড় পাওয়ার জন্য ওই সাধারণভাবে কেনাকাটা করলে চলবে না। বিশেষ ট্রিক বা পদ্ধতি অনুসরণ করে কেনাকাটা করলে তবেই ওই এক্সট্রা ছাড় পেতে পারবেন।

ওই বেসিক ছাড়টা বিশেষ বিশেষ সময় বা সাধারণত সেল গুলোর সময় দেওয়া হয়। তবে এই এক্সট্রা ছাড় আপনি যেকোনো সময় কেনাকাটার সময়-ই পেতে পারেন। তবে বিশেষ বিশেষ সময় এই এক্সট্রা ছাড় বেশি হারে দেওয়া হয়।

বিভিন্ন ব্যাংকের ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ডে এরকম এক্সট্রা ছাড় পেতে আলাদা আলাদা উপায় অবলম্বন করতে হয়। এই আর্টিকেলে আমি ভারতের সবথেকে বড় তিনটি প্রাইভেট ব্যাংক যথা এইচ ডি এফ সি, আই সি আই সি আই ও অ্যাক্সিস এবং সবথেকে বড় সরকারি ব্যাংক মানে এস বি আই-এর কার্ডের ক্ষেত্রে সেই উপায় বা পদ্ধতির কথা বলব।

এইচ ডি এফ সি (HDFC) ব্যাংকের ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ডে এক্সট্রা ছাড় পাওয়ার পদ্ধতিঃ

এইচ ডি এফ সি ব্যাংকের যেকোনো ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ড যদি আপনার কাছে থাকে তাহলে অনলাইনে শপিং শুরু করার আগে আপনাকে যেতে হবে এইচ ডি এফ সি (HDFC) ব্যাংকের স্মার্ট-বাই পেজে। ওখানে যাওয়ার জন্য আপনি গুগল করতে পারেন ‘HDFC Smartbuy’ অথবা এই স্মার্টবাই ← লিঙ্কে ক্লিক করতে পারেন।

এইচ ডি এফ সি স্মার্টবাই তে যাওয়ার পর কম্পিউটার এর ক্ষেত্রে উপরের দিকে এবং মোবাইলে হলে একদম সামনেই আপনি দেখতে পাবেন কোন কোন ওয়েবসাইটে ছাড় উপলব্ধ। এবং তার সাথেই কত ছাড় উপলব্ধ সেটাও দেখতে পাবেন।

HDFC SmartBuy
এইচডিএফসি স্মার্ট-বাই

তারপর আপনার পছন্দের ওয়েবসাইটের আইকনের উপর ক্লিক / ট্যাপ করতে হবে। এরপর একটা মেসেজ দেখাবে। চাইলে আপনি সেটা পড়ে নিতে পারেন। তারপর আপনাকে PROCEED করতে হবে।

HDFC SmartBuy Proceed
‘PROCEED’

এবং তার পরই আপনার পছন্দের ওয়েবসাইট বা অ্যাপ খুলে যাবে। এরপর আপনি যেমন সাধারণ শপিং বা অর্ডার করেন তেমনই করবেন। মানে সার্চ করার পর কার্টে অ্যাড করে চেকআউট করে এইচ ডি এফ সি ব্যাংকের কার্ড ব্যবহার করে পেমেন্ট করে দেবেন। ব্যাস কাজ শেষ। নির্দিষ্ট সময় পরে ক্যাশব্যাক আপনার কার্ডে চলে আসবে।

আরও পড়ুনঃ  পশ্চিমবঙ্গ সরকার স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডঃ সুবিধা নাকি ঝঞ্ঝাট?

আই সি আই সি আই (ICICI) ব্যাংকের ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ডে এক্সট্রা ছাড় পাওয়ার পদ্ধতিঃ

আই সি আই সি আই ব্যাংকের কার্ডে এই ছাড় পেতে এই ব্যাংকের ‘ক্যাশব্যাক অ্যান্ড বাই’ পেজে যেতে হবে। ওখানে যাওয়ার জন্য গুগল করতে পারেন ‘ICICI Cashback and Buy’ অথবা ক্যাশব্যাক অ্যান্ড বাই ← এই লিঙ্কে ক্লিক করতে পারেন। এছাড়া iMobile Pay অ্যাপ-এ লগইন করার পর Offers → Offers Tab → তারপর মাঝের আইকন গুলো স্ক্রল করে তারপর Cashbacks সেকশনে যেতে পারেন।

ICICI Cashback and Buy
আইসিআইসিআই ক্যাশব্যাক অ্যান্ড বাই

ক্যাশব্যাক সেকশনে যাওয়ার পর কোন কোন ওয়েবসাইটে কত হারে এক্সট্রা ক্যাশব্যাক পাওয়া যাচ্ছে তার একটা তালিকা আপনি দেখতে পাবেন। এরপর আপনার পছন্দের ওয়েবসাইট বা অ্যাপ এর নামের উপর ক্লিক করতে হবে। তারপর ক্লিক করতে হবে ‘ACTIVATE CASHBACK’ বাটন-এ।

ICICI Cashback and Buy Activate Cashback
‘ACTIVATE CASHBACK’

তারপর যে পেজ খুলবে সেখানে আই সি আই সি আই ব্যাংক কার্ডে আপনার রেজিস্টার্ড মোবাইল নম্বর এন্টার করে ‘PROCEED’ করতে হবে।

ICICI Cashback and Buy Proceed
‘PROCEED’

ব্যাস এরপরই সেই শপিং ওয়েবসাইট বা অ্যাপ খুলে যাবে এবং আপনাকে আগের কার্ডের ক্ষেত্রে যেমন বললাম সেইমতই শপিং করে আই সি আই সি আই ব্যাংকের কার্ড ব্যবহার করে পেমেন্ট করে দিতে হবে। 

তবে এই ক্ষেত্রে ক্যাশব্যাক নিজে নিজে কার্ড বা ব্যাংক একাউন্টে ফেরত আসে না। ক্যাশব্যাক আপনার ওই মোবাইল নম্বরে লিঙ্ক হয়ে থাকে এবং এই ক্যাশব্যাক অ্যান্ড বাই পেজের  ‘Manage Cashback’ সেকশন থেকে আপনি ওই ক্যাশব্যাক পেমেন্ট রিকোয়েস্ট করে ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ফেরত পেতে পারবেন।

একটু খেয়াল করলে দেখতে পাবেন এই সার্ভিস ‘পাওয়ারড বাই ক্যাশকরো’। আমি ক্যাশকরো অ্যাপ নিয়ে আগেই অন্য এক আর্টিকেলে বলেছি। আপনি এই জায়গায় কেবলমাত্র আই সি আই সি আই ব্যাংকের কার্ডেই সুবিধাটা পাবেন। কিন্তু ক্যাশকরোতে সব কার্ড বা সব পেমেন্ট অপশনের লাভ নিতে চাইলে নীচের আর্টিকেল টা পড়ে নিতে পারেনঃ

অ্যাক্সিস (Axis) ব্যাংকের ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ডে এক্সট্রা ছাড় পাওয়ার পদ্ধতিঃ

অ্যাক্সিস ব্যাংকের কার্ডের ক্ষেত্রে আপনাকে যেতে হবে অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কের ‘গ্র্যাব ডিলস’ ওয়েব পেজ। এর জন্য গুগল করুন ‘Axis Bank Grab Deals’ অথবা অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক গ্র্যাব ডিলস ← এই লিঙ্কে ক্লিক করুন। 

আরও পড়ুনঃ  এভাবে ক্রেডিট কার্ডের জন্য আবেদন করে 2000 টাকা পর্যন্ত উপহার পান

ওই পেজ খুলেই আপনি দেখতে পাবেন বিভিন্ন ওয়েবসাইট এবং সেখানে প্রাপ্ত ছাড়ের তালিকা। যেমন ধরুন ফ্লিপকার্টে 5% পর্যন্ত, অ্যামাজনে 2% ফ্ল্যাট কিংবা আজিওতে ফ্ল্যাট 5% এক্সট্রা ছাড় পেতে পারবেন।

Axis Bank Grab Deals
অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক গ্র্যাব ডিলস

তবে বলে রাখা ভালো সময় বিশেষে কিন্তু এই ছাড়ের হার পরিবর্তিত হয়। যেমন অ্যামাজন বা ফ্লিপকার্টে সময় বিশেষে 10% পর্যন্ত এক্সট্রা ছাড় পাওয়া যায়। সাধারনত বড় বড় সেল গুলোর সময় অ্যাক্সিস ব্যাংক এই সুযোগ দেয়।

এবার তাহলে ভেবে দেখুন, যদি ওয়েবসাইটে এবং এখানে দুই জায়গার 10% ছাড়ের সুবিধা একসাথে নিতে পারেন তাহলে আপনি মোট 20% পর্যন্ত ছাড় পেতে পারবেন। তবে এই ধরণের পরিস্থিতি সাধারণত ফ্লিপকার্ট বিগ বিলিয়ন ডে-এর সময় ই হয়।

আবার আপনার কাছে ফ্লিপকার্ট অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক ক্রেডিট কার্ড থাকলে আপনি ফ্লিপকার্ট এর ক্ষেত্রে 5% বেসিক এবং এখান থেকে 5% এক্সট্রা মানে মোট 10% ছাড়ের সুবিধা আপনি বছরের যেকোনো সময়ে পেতে পারবেন।

যাইহোক পছন্দের ওয়েবসাইট বেছে নিয়ে তার উপর ক্লিক করতে হয়। তারপর যে পেজ আসে সেখানে রিওয়ার্ড পয়েন্ট বা ক্যাশব্যাক দুই অপশন এর মধ্যে যেকোনো একটা বেছে নেওয়ার সুযোগ থাকে।

Axis Bank Grab Deals Choose Reward Points or Cashback

 এর পরের অংশে নির্দিষ্ট জায়গায় আপনার অ্যাক্সিস ব্যাংক কার্ডের শেষ চার ডিজিট ও অ্যাক্সিস ব্যাংকে রেজিস্টার্ড ফোন নম্বর এন্টার করতে হয়। অতঃপর আই এগ্রি টু দা টার্মস এন্ড কন্ডিশনস-এ টিক দিয়ে ‘Submit’ করতে হয়।

Axis Bank Grab Deals Submit
‘Submit’

তার পরেই আপনার চয়েস করা ওয়েবসাইট বা অ্যাপ খুলে যায় এবং আপনাকে প্রোডাক্ট সার্চ করে কার্টে অ্যাড করে চেক আউট করার পর যে অ্যাক্সিস ব্যাংক কার্ডের শেষ চার ডিজিট একটু আগে এন্টার করেছিলেন সেই কার্ড দিয়েই পেমেন্ট কমপ্লিট করতে হয়।

ক্যাশব্যাক নির্দিষ্ট সময় পরে নিজে নিজেই কার্ড একাউন্টে ফিরে আসে। 

এস বি আই (SBI) ব্যাংকের ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ডে এক্সট্রা ছাড় পাওয়ার পদ্ধতিঃ

এস বি আই ব্যাংকের কার্ডের ক্ষেত্রে আপনাকে প্রথমে এস বি আই ব্যাংকের ইয়োনো (yono) অ্যাপ ডাউনলোড করে রেজিস্টার ও এক্টিভেট করতে হবে।

তারপর সেট করা এম পিন এন্টার করে ইয়নো অ্যাপে লগইন করতে হবে। তারপরে ট্যাপ করতে হবে ‘Shop & Order’ বাটনে।

SBI yono Shop & Order
এসবিআই ইয়োনো শপ অ্যান্ড অর্ডার

এর পরেই আপনি বিভিন্ন ওয়েবসাইট বা অ্যাপ এর লিস্ট পেয়ে যাবেন। পছন্দের ওয়েবসাইট সিলেক্ট করার পর টার্মস অ্যন্ড কন্ডিশনস একসেপ্ট করে ‘Continue’ করতে হবে।

SBI yono Shop & Order Continue
‘Continue’

এরপর আপনার পছন্দের ওয়েবসাইট ওপেন হয়ে সেই ওয়েবসাইটের মধ্যে একটা টার্মস এন্ড কন্ডিশনস পেজে আসতে পারে। সে ক্ষেত্রে পুরো পেজটা স্ক্রল করে সবার নিচে ‘Click here to Shop now’ বাটন দেখতে পাবেন সেই বাটনে ট্যাপ করতে হবে।

SBI yono Shop & Order Shop now
‘Click here to Shop now’

যদি আপনি ফ্লিপকার্ট সিলেক্ট করে থাকেন তাহলে দেখতে পাবেন এক্ষেত্রে ক্যাশব্যাক রিয়েল মানি হিসেবে ফেরত পাওয়া যায় না। আপনার প্রাপ্ত ক্যাশব্যাক ফ্লিপকার্ট গিফট কার্ড হিসাবে নির্দিষ্ট সময়ে পরে আপনার ফোন নম্বরে চলে আসে। সেই গিফট কার্ড আপনাকে ফ্লিপকার্টে অ্যাড করে নিয়ে ফ্লিপকার্টে কেনাকাটার সময় ব্যবহার করতে হয়।

আরও পড়ুনঃ  পশ্চিমবঙ্গ সরকারের ভবিষ্যৎ ক্রেডিট কার্ড মানেই ভবিষ্যৎ সেট?

ঠিক ভাবে ক্যাশব্যাক পাওয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণঃ

উপরের চার ক্ষেত্রেই খেয়াল রাখতে হবে ব্যাংকের পেজ বা অ্যাপ থেকে শপিং ওয়েবসাইট বা অ্যাপে  যাওয়ার পরই যেন প্রোডাক্ট কার্টে অ্যাড করা হয়। আগে থেকে কার্টে কোনও প্রোডাক্ট অ্যাড করা থাকলে সেই প্রোডাক্টে ক্যাশব্যাক পাওয়া যায় না। ব্যাংকের ওয়েবসাইট থেকে শপিং ওয়েবসাইটে পাঠানোর পর কোন কোন প্রোডাক্ট কার্টে অ্যাড করা হচ্ছে সেটা বোঝার জন্য সেশন ট্র্যাক করা হয়। তাই যাতে তাতে কোনও সমস্যা না হয় চেষ্টা করতে হবে ঝটপট এবং একবারেই পুরো প্রসেস টা শেষ করতে। চেষ্টা করবেন সর্বাধিক 30 মিনিটের মধ্যেই কাজটা শেষ করতে। এখন কিছুটা করলাম পরে বাকিটা, তাহলে কিন্তু সেশন ব্রেক হয়ে যাবে এবং ক্যাশব্যাক পাওয়া যাবে না। কোনও কারনে একবারে পুরো প্রসেস শেষ না করতে পারলে কার্ট থেকে প্রোডাক্ট ডিলিট করে আবার পুরো প্রসেসটা প্রথম থেকে করতে হবে।

শেষ করার আগে…

সবশেষে বলতে চাই, সাধারনভাবেই কিছু কিছু বিশেষ ক্রেডিট কার্ডে কোনও বিশেষ ট্রিক ব্যবহার ছাড়াই সব সময়েই অনলাইনে কেনাকাটার সময় বেশি ছাড় বা ক্যাশব্যাক পাওয়া যায়। সেই ধরণের কার্ডের মধ্যে সবথেকে সেরা 5 টি ক্যাশব্যাক ক্রেডিট কার্ডের ব্যপারে যদি জানতে চান নীচের লিঙ্কটা ফলো করতে পারেন।

অনলাইনে কেনাকাটার জন্য সেরা 5 ক্রেডিট কার্ড[এখানে ট্যাপ করুন]

আর যদি একটা কমন ট্রিকের ব্যাপারে জানতে চান, যেটার ব্যাপারে আমি উপরে আইসিআইসিআই ব্যাংক কার্ডের বিবরণীতে উল্লেখ করেছি এবং যেটা ফলো করলে যেকোনো ডেবিট-ক্রেডিট কার্ড বা অন্য পেমেন্ট অপশন এমনকি ক্যাশ অন ডেলিভারির ক্ষেত্রেও ক্যাশব্যাক পেতে পারবেন, তাহলে নিচের আর্টিকেলটা পড়তে পারেন।

তাহলে এখানেই শেষ করছি। এরকমই আরও ট্রিকের ব্যাপারে জানতে ও আপডেট পেতে চাইলে লাল বেল বাটন থেকে নোটিফিকেশন অন করে নিতে পারেন। আর এই guptadhan.com কে মনের কোনায় একটু জায়গা দেবেন এই আশা রেখে আজকের মত বিদায় জানাচ্ছি। আবার দেখা হবে অন্য কোনও আর্টিকেলে। ভালো থাকবেন 🙂

মন্তব্য করুন