এই ওয়েবসাইটগুলো শেয়ার বাজারের ইনভেস্টার ও ট্রেডারদের জানা মাস্ট

5/5 - (3 জন রেটিং করেছেন)

শেয়ার বাজারে ট্রেডিং বা ইনভেস্টিং যাই করা হোক না কেন, এখানে টিকে থাকতে হলে প্রচুর রিসার্চ করতে হয়, বিভিন্ন নতুন খবর সম্পর্কে আপডেটেড থাকতে হয়, স্টক খুঁজতে হয়, চার্ট দেখতে হয়, টেকনিক্যাল ও ফান্ডামেন্টাল অ্যানালিসিস করতে হয় ইত্যাদি ইত্যাদি ইত্যাদি। আর এসব করার জন্য দরকার পড়ে কিছু অস্ত্রের।

এখানে অস্ত্র হচ্ছে তাই যা বিবিধ প্রয়োজনীয় তথ্য ও টুল সরবরাহ করে। উপরে যে যে কাজের কথা বললাম, একসময় সেগুলোর সবকিছুই হত কাগজ কলমের সাহায্যে ম্যানুয়ালি। কিন্তু আজ এই টেকনোলজি, কম্পিউটার, মোবাইল আর ইন্টারনেটের যুগে কয়েকটা ওয়েবসাইট (ও বিকল্প অ্যাপ) থেকেই ঐ সমস্ত কাজের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য আর টুলগুলো পাওয়া যায়।

এই নিবন্ধে শেয়ার বাজার সংক্রান্ত এই ধরনেরই কিছু জনপ্রিয়, কার্যকরী ও বহুলব্যবহৃত ওয়েবসাইটের সন্ধান পাবেন। পেশাদার ইনভেস্টার ও ট্রেডাররাও এগুলো ব্যবহার করে থাকে।

শেয়ারের রিসার্চ এবং খবরাখবরের ওয়েবসাইট

এনএসই ইন্ডিয়া (NSE India) ও বিএসই ইন্ডিয়া (BSE India)

শেয়ার বাজারে পা ফেলতে হলে সবার আগে দরকার পড়ে সেখানে লিস্টেড কোম্পানিগুলোর হদিস পাওয়া, তাদের আয়ের রিপোর্ট তলব করা, ব্যবসা সংক্রান্ত সমস্ত নম্বরগুলো খতিয়ে দেখা, শেয়ারহোল্ডিং প্যাটার্ন সম্পর্কে জানা এবং তাদের খবরাখবর সম্পর্কে ওয়াকিবহাল থাকা।

কোম্পানিগুলো লিস্টেড থাকে এক্সচেঞ্জে। আর সেখানেই স্টোর করা থাকে থাকে তাদের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় সমস্ত সাম্প্রতিকতম ও নির্ভুল তথ্যসমূহ। এক্সচেঞ্জ থেকে সরাসরি ওই সমস্ত তথ্য পেতে হলে যেতে হবে ভারতের সবথেকে বড় দুই এক্সচেঞ্জ যথা, ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জ অফ ইন্ডিয়া (এনএসই) এবং বোম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ অফ ইন্ডিয়ার (বিএসই) অফিসিয়াল ওয়েবসাইট যথাক্রমে nseindia.combseindia.com -তে। 

এই দুই ওয়েবসাইটে বিবিধ কোম্পানির সম্পর্কে তথ্য ছাড়াও কী কী ইনডেক্স হয়, ওই সমস্ত ইনডেক্স কোন কোন কোম্পানির সহযোগে তৈরি হয়, কী কী ইটিএফ আছে, কোন কোন কোম্পানি বা ইনডেক্সের ডেরিভেটিভ হয় ইত্যাদি বিষয়ে জানতে পারবেন। আবার বাল্ক ডিল, আইপিও, অপশন চেন, রুলস অ্যান্ড রেগুলেশন্স এমনকি বিবিধ অফিসিয়াল কোর্সের ব্যাপারেও অবগত থাকতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ  শেয়ারের দাম এত কমে-বাড়ে কেন বলুন তো? জানলেই লাভ পাবেন

এখনই ভিজিট করুনঃ nseindia.com এবং bseindia.com

>>এনসই ইন্ডিয়া-র মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ কিছু লিংকঃ

গুগল ফাইন্যান্স

ছিমছাম ভাবে সাজানো এই ওয়েবসাইটে বাজারের পরিস্থিতি এক ঝলকে দেখে নেওয়া যায়। এর প্রথম পাতায় খবর, ট্রেন্ড, আরনিং ক্যলেন্ডার ইত্যাদি যেমন পাওয়া যায় তেমনই এখানে নিজের খুশিমতো ওয়াচ লিস্ট ও ডামি পোর্টফলিও বানানো যায় যেগুলো বাজারে বিশেষ বিশেষ শেয়ারের দামের পরিবর্তন সম্পর্কে সজাগ থাকতে সাহায্য করে।

এছাড়া যেকোনো স্টকের পেজে গেলেও এক ঝলকে সরল চার্ট সহযোগে শেয়ারের দামের পরিবর্তনের রূপরেখা ও আর্থিক তথ্যগুলো সম্পর্কে সহজেই একটা ধারণা পাওয়া যায়।

এখনই ভিজিট করুনঃ google.com/finance

মানিকন্ট্রোল

শেয়ারবাজারে অংশগ্রহণকারীদের আরও এক ভীষণ পছন্দের ওয়েবসাইট হচ্ছে মানিকন্ট্রোল। এখানে বাজার, ব্যবসা, ইকোনমি ইত্যাদি সংক্রান্ত খবর সম্পর্কে যেমন ওয়াকিবহাল থাকা যায় তেমনই এক ঝলকে দেশীয় ও বিদেশী মার্কেট অ্যাকশন ও শেয়ার অ্যাকশন দেখে নেওয়া যায়। এছাড়া এখানে বিবিধ শেয়ার এবং মিউচুয়াল ফান্ড সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যায়।

ইনস্টিটিউশনাল ইনভেস্টারদের কেনাকাটা সম্পর্কে জানার জন্য এই ওয়েবসাইটের এফআইআই ডিআইআই অ্যাক্টিভিটি পেজটা খুবই জনপ্রিয়। আবার এখানে বড় বড় স্টার ইনভেস্টারদের পোর্টফলিওতে কী কী শেয়ার থাকে সেসম্পর্কেও জানা যায়।

এই ওয়েবসাইটেরই একটা অংশ মানিভাই পেপার ট্রেডিং যেখানে খেলার ছলে ট্রেডিং-এর নেট প্র্যাকটিস করা যায়।

ভিজিট করুনঃ moneycontrol.com

>>এই ওয়েবসাইটের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ কিছু লিংকঃ

ট্রেন্ডলাইন

সুন্দরভাবে ডিজাইন করা অ্যাড বিহীন একটা আধুনিক ওয়েবসাইট হচ্ছে ট্রেন্ডলাইন। এখানে সমস্তরকম রিসার্চের জন্য প্রচুর টুল উপলব্ধ। প্রধান মেনুবারে সমস্তকিছু খুব সুন্দরভাবে আলাদা আলাদা বিভাগে সাজানো, যাতে যেটা প্রয়োজন খুব সহজেই খুঁজে পাওয়া যায়। বেশীরভাগ তথ্যের সাথে দেওয়া চার্ট বা অন্যান্য ভিজুয়াল টাচ বোরিং নম্বরগুলোকে খুব সুন্দরভাবে চোখের সামনে ফুটিয়ে তোলে।

এখানে বাজার ও শেয়ার সম্পর্কিত প্রাথমিক তথ্য ছাড়াও সেক্টর, ইনস্টিটিউশনাল অ্যাক্টিভিটি, ফিউচার অপশন, মিউচুয়াল ফান্ড, রেজাল্ট, রিপোর্ট, সুপারস্টার পোর্টফোলিও, স্ক্রীনার, বাল্ক ডিল, ইনসাইডার ট্রেড ইত্যাদি সম্পর্কিত অনেক কিছুই পেয়ে যাবেন এক ছাদের তোলায়। এছাড়া চাইলে এর সাথে জিরোধা, অ্যাঞ্জেল, ৫পয়সা ইত্যাদি ব্রোকারের ডিম্যাট লিংক করে এখান থেকে সরাসরি অর্ডারও দিতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ  শেয়ার বাজারের ট্রেডিং কোর্সের বাস্তব সত্যি! খরচের আগে জেনে নিন।

ভিজিট করুনঃ trendlyne.com

স্টক রিসার্চ করার অন্যান্য ওয়েবসাইট

আর্থিক খবরাখবর সংক্রান্ত অন্যান্য ওয়েবসাইট

স্ক্রীনার ওয়েবসাইট

ভারতীয় শেয়ার বাজারে হাজার হাজার লিস্টেড কোম্পানি থেকে নিজের শর্ত অনুযায়ী কোম্পানি বেছে নিতে দরকার পড়ে স্ক্রীনারের। এছাড়া এধরণের ওয়েবসাইটগুলো সাধারণত বিশেষ লজিক অনুযায়ী এদের নিজস্ব কিছু ‘স্ক্রিন’ প্রোভাইড করে যেগুলোতে এক একটা ক্লিক করেই এক একটা শেয়ারের তালিকা পাওয়া যায়।

স্ক্রীনার ডট ইন

সবথেকে জনপ্রিয় স্ক্রীনার ওয়েবসাইট হল স্ক্রীনার ডট ইন। এই ওয়েবসাইটে স্ক্রিন করা ছাড়াও কোম্পানির ব্যালেন্স শিট, প্রফিট লস স্টেটমেন্ট, ক্যাশ ফ্লো এবং ফাইন্যান্সিয়াল রেশিও সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য একটা জায়গায় সুন্দর করে সাজানো-গোছানো অবস্থায় পাওয়া যায়।

ভিজিট করুনঃ screener.in

অন্যান্য স্ক্রীনার

চার্টিং ওয়েবসাইট

শেয়ার খুঁজে পাওয়ার পর প্রাইস চার্ট খুলে অতীতের দামের পরিবর্তনের রূপরেখা দেখতে, চার্ট প্যাটার্ন খুঁজতে এবং ইন্ডিকেটর প্রয়োগ করে বিস্তারিত টেকনিক্যাল অ্যানালিসিস করতে দরকার পড়ে চার্টিং ওয়েবসাইটের। এমনিতে সরল লাইন চার্ট অনেক ওয়েবসাইটেই পাওয়া যায়, কিন্তু বিস্তারিত ভাবে চার্ট দেখতে হলে স্পেশালাইজড চার্টিং ওয়েবসাইটের দরকার পড়ে।

ট্রেডিংভিউ

ট্রেডিংভিউ হল বিশ্বের সবথেকে জনপ্রিয় চার্টিং ওয়েবসাইট। এটা এতই জনপ্রিয় যে, বেশীরভাগ ডিম্যাট অ্যাকাউন্টেও এই ওয়েবসাইটের প্রোভাইড করা চার্টই ব্যবহৃত হয়। তবে ডিম্যাট একাউন্টে এর যে ভার্সান পাওয়া যায় তার থেকে সরাসরি ওয়েবসাইটে গেলে আরো কিছু বেশি ফিচার পাওয়া যায়।

চার্ট ছাড়াও এখানে বিবিধ শেয়ারের চার্টের উপর আগে থেকে আঁকিবুকি করা বিবিধ ট্রেডিং আইডিয়া পাওয়া যায়। এবং ফেক টাকা দিয়ে এখানে লাইভ মার্কেটে পেপার ট্রেড করে ট্রেডিং প্র্যাকটিসও করা যায়।

ভিজিট করুনঃ in.tradingview.com

>>এই ওয়েবসাইটের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ কিছু লিংকঃ

>> পেপার ট্রেডিং-এর জন্য এক্ষেত্রে আলাদা কোনো পেজ নেই, চার্ট থেকে অর্ডার অপশনে যাওয়ার পর ট্রেডিং প্যানেল থেকে পেপার ট্রেডিং বেছে নিয়ে অর্ডার প্লেস করতে হয়।

অন্যান্যঃ

ট্রেডিং ও ইনভেস্টিং শেখার জন্য ওয়েবসাইট

জিরোধা ভার্সিটি

ফ্রিতে ইনভেস্টিং ও ট্রেডিং শেখার সবথেকে ভালো ওয়েবসাইট এই জিরোধা ভার্সিটি। এখানে যা কনটেন্ট আছে, অনেক দামী দামী পেড কোর্সেও তা শেখায় না!

ভিজিট করুনঃ zerodha.com/varsity

আরও পড়ুনঃ  সক্রিয় শেয়ার ট্রেডিং-এর 4 ধরণ। নতুন ট্রেডারদের এগুলো জানা চাই-ই-চাই।

গুপ্তধন ডট কম

এই ব্লগে সরল বাংলা ভাষায় ট্রেডিং ও ইনভেস্টিং সংক্রান্ত অনেক কিছু জানতে পারবেন। এছাড়া টাকাপয়সা সম্পর্কিত আরও অনেক বিষয়ে আপডেটেড থাকতে পারবেন।

বিশেষ সংযোজন 

সেক্টর

শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ করার আগে বা কোম্পানি খোঁজার আগে সেক্টর ধরে এগোনো একটা ভালো পন্থা। কী কী সেক্টর আছে বা কোন সেক্টরের সম্ভাবনা কেমন সেটা জানতে হলে ভিজিট করতে হবে,

ওয়ার্ল্ড ইকোনমি

এই বাজারের ক্ষেত্রে দেশের বাইরের আঁচ দেশের ভিতরেও আসে। তাই ওয়ার্ল্ড ইকোনমি সম্পর্কে আপডেটেড থাকতে ভিজিট করতে পারেন,

নিফটির পূর্বাভাস

প্রতি সকালে নিফটি কোনদিকে যাত্রা শুরু করবে তার একটা পূর্বাভাস পাওয়া যায় এসজিএক্স নিফটি থেকে।

ওয়ার্ল্ড ইনডেক্স

পরের দিনে ভারতের বাজার কেমন চলতে পারে কখনো কখনো তার একটা পূর্বাভাস দেয় অন্যান্য দেশের ইনডেক্স। এমনিতে ওয়ার্ল্ড ইনডেক্স ইতিমধ্যে বলা অনেক ওয়েবসাইটেই দেখা যায়। তবে বোঝার সুবিধের জন্য ম্যাপ এর উপর দেখায় সিএনএন।

ট্রেডার ফোরাম

ট্রেডারদের প্রশ্ন-উত্তর, আলাপ-আলোচনার জন্য জিরোধার তৈরি একটা ফোরাম এটা। এখানে ট্রেডিং সম্পর্কিত অনেক বিষয় জানতে পারবেন, অনেক ব্যাপারে আপডেটেড থাকতে পারবেন।

  • ট্রেডিং কিউ অ্যান্ড এঃ tradingqna.com

স্টক হিটম্যাপ

ইনডেক্স বা কোনো থিম অনুযায়ী এক ঝাঁক শেয়ারের হিট ম্যাপ দেখে এক ঝলকেই ওইসমস্ত শেয়ারের মধ্যে কোনটা বাড়ছে বা কোনটা কমছে বুঝে নেওয়া যায়। এধরণের হিটম্যাপ পাবেন নীচের লিংক গুলোয় —

শেষ কথা

এখনও পর্যন্ত যে যে ওয়েবসাইটের কথা বলেছি প্রায় তার প্রত্যেকটারই স্মার্টফোন অ্যাপও আছে যা ওয়েবসাইটের বিকল্প হিসাবে গুগল প্লে স্টোর বা অ্যাপেল অ্যাপ স্টোর থেকে ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারেন। এই লম্বা তালিকাটা নিজের সুবিধার্থে বুকমার্ক করে রাখতে পারেন যাতে পরে খুঁজে পেতে অসুবিধে না হয়। বড় কোনো নাম মিস করে গেছি বলে মনে হলে কমেন্ট সেকশনে জানাতে অনুরোধ রইল।

আজ তাহলে এখানেই শেষ করি। ভালো থাকবেন।


মন্তব্য করুন